শুক্রবার   ২৭ নভেম্বর ২০২০   অগ্রাহায়ণ ১২ ১৪২৭   ১১ রবিউস সানি ১৪৪২

  যশোরের আলো
সর্বশেষ:
‘করোনার দ্বিতীয় পর্যায় মোকাবেলায় সব প্রস্তুতি নিতে হবে’ ‘আ.লীগ গণতন্ত্রের চর্চা ও দুষ্টের দমন করে’ ঝিনাইদহে ২৭ শহীদের ৪৯তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত বাংলাদেশ দলের সঙ্গে ম্যারাডোনার বিরল মুহূর্ত বৈদেশিক মুদ্রার মজুদ ৪১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ছাড়িয়েছে ফরিদপুর পৌরসভার নির্বাচন ছয় মাসের জন্য স্থগিত শৈলকুপায় আটকা পড়েছে এশিয়ার সবচেয়ে বিষধর সাপ ব্যক্তি জীবনে ম্যারাডোনা আমার একমাত্র সুপারস্টার: মাশরাফি ‘তথ্য-প্রযুক্তির ব্যবহারে বাংলাদেশ বিশ্বের অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত’
২৭

আখের রসেই সারবে সর্দি-কাশি, বাড়বে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা

প্রকাশিত: ১৮ নভেম্বর ২০২০  

দিনে গরম, রাতে ঠাণ্ডা পড়ায় এখন অনেকেই সর্দি কাশিতে ভুগছেন। সেইসঙ্গে রয়েছে মহামারি রোগ। সব মিলিয়ে এখন সুস্থ থাকা চ্যালেঞ্জের বিষয়। এসময় শরীর সুস্থ রাখতে পুষ্টিকর খাবার সেইসঙ্গে শরীরচর্চার বিকল্প নেই।

সর্দি-কাশির পাশাপাশি, গলা ব্যথা, মাথা ব্যথা এবং বমি বমিভাবেও ভুগছেন অনেকে। এসব সমস্যার সমাধান রয়েছে আখের রসে। এতে থাকা বিভিন্ন পুষ্টিগুণ শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এ কারণেই সর্দি-কাশি আপনার ধারে কাছে ভিড়বে না। 

আখের রস বাজারে সহজেই পাওয়া যায়। এই রস লিভার পরিষ্কার এবং ডিটক্সাইফাই করতে সহায়তা করে। সেইসঙ্গে ইমিউন সিস্টেমকে উন্নত করে। অলসতা কমানোর পাশাপাশি আখের রস মন-মেজাজকে প্রফুল্ল রাখতেও সাহায্য করে। দিনে অন্তত দুইবার আখের রস খাওয়া বেশ উপকারী। 

চলুন তবে জেনে নেয়া যাক আখের রসের বিভিন্ন পুষ্টিগুণ সম্পর্কে-

> আখের রসে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এজন্য সর্দি-কাশি এমনকি ক্যান্সার পর্যন্ত ধারে কাছে ভিড়ে না।

> এতে থাকা ফলিক অ্যাসিড গর্ভবতী মায়ের শরীরের একাধিক সমস্যা দূর হয়। সেই সঙ্গে বাচ্চারও শারীরিক উন্নতি ঘটে। 

> নিয়মিত আখের রস খেলে সেনসরি অর্গেন, রিপ্রাডাকটিভ অর্গেন এবং ব্রেনের ক্ষমতা বৃদ্ধি পাওয়ায় কারণে আয়ুও বাড়ে

> গ্লাইসেমিক ইনডেক্সে একেবারেই কম আখের রসে। এজন্য রক্তে শর্করার মাত্রা বেড়ে যাওয়ার কোনো আশঙ্কা থাকে না। 

> আয়ুর্বেদ শাস্ত্র মতে, আখের রসে উপস্থিত ল্যাক্সেটিভ প্রপাটিজ বাওয়েল মুভমেন্টের উন্নতি ঘটায়। ফলে কোষ্ঠকাঠিন্যের মতো সমস্যা কমতে সময়ই লাগে না। 

> আখের রসে থাকা একাধিক উপকারী উপাদান ইউরিনারি ট্রাক্ট ইনফেকশন সারাতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। সেই সঙ্গে কিডনি স্টোনের মতো সমস্যা দূর করতেও সাহায্য় করে। 

> এতে থাকা কার্বোহাইড্রেট, প্রোটিন, আয়রন, পটাশিয়াম এবং অন্য়ান্য় উপকারী উপাদান শরীরের এনার্জি বাড়ায়। 

> লিভার সুস্থ রাখতে আখের রস দারুন কাজে আসে। সেই কারণেই তো জন্ডিসের প্রকোপ কমাতে রোগীকে আখের রস খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন চিকিৎসকেরা। 

> নিয়মিত আখের রস খেলে দেহের অন্দরে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং ফ্লেবোনয়েডের পরিমাণ বাড়তে শুরু করে। এই দুটি উপাদান ত্বক এবং শরীরের ভেতরের ক্ষতিকর টক্সিক উপাদানদের বের করে দেয়। ফলে শরীরের পাশাপাশি ত্বকের বয়স বাড়ার আশঙ্কা হ্রাস পায়। 

> প্রচুর মাত্রায় ক্যালসিয়াম থাকার কারণে নিয়মিত আখের রস খেলে হাড় শক্তপোক্ত তো হয়ই, সেই সঙ্গে দাঁতের স্বাস্থ্যেরও উন্নতি ঘটে। 

> আখের রসে থাকা আলফা হাইড্রক্সি অ্যাসিড স্কিন সেলের উৎপাদন বাড়ায়ে ব্রণের প্রকাপ কমাতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

  যশোরের আলো
  যশোরের আলো