শনিবার   ০৬ জুন ২০২০   জ্যৈষ্ঠ ২৩ ১৪২৭   ১৪ শাওয়াল ১৪৪১

  যশোরের আলো
৬৮

আম্ফানে উপড়ে পড়েছে যশোর রোডের ৫টি শতবর্ষী রেইনট্রি

জেলা প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২৩ মে ২০২০  

ঐতিহাসিক যশোর রোডের ৫টি শতবর্ষী রেইনট্রি গাছ উপড়ে পড়েছে এ অঞ্চলের ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের তাণ্ডবে। আর কিছু কিছু গাছের ডালপালা ভেঙ্গেছে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এই রোডের দুই সহস্রাধিক রেইনট্রি গাছ মহাদুর্যোগ রক্ষায় ঢাল হয়ে বেশ ভূমিকা রেখেছে। মানুষ রক্ষা করতে গিয়ে এক রাতেই প্রাণ দিল ৫টি বৃক্ষ।

যশোর জেলা পরিষদের হিসাবে, বুধবার রাতে ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের তাণ্ডবে যশোর রোডের যশোর-বেনাপোল ৩৮ কিলোমিটার অংশে ৫টি শতবর্ষী রেইনট্রি গাছ উপড়ে পড়েছে রাস্তায়। এর মধ্যে ঝিকরগাছার হাজের আলী বালিখোলা এলাকায় ১টি, বেনেয়ালিতে ২টি, বাদে নাভারণে আরও ২টি গাছ রয়েছে। ডালপালা ভেঙ্গেছে অনেক গাছের। ফায়ার সার্ভিস ও প্রশাসনের বিভিন্ন বিভাগের চেষ্টায় বিকেলের দিকে সড়ক থেকে গাছের কিছু অংশ সরিয়ে চলাচলে আংশিক উপযোগী করা হয়েছে।

যশোর জেলা পরিষদের বৃক্ষ রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বরত এমএ মঞ্জু জানান, যশোর রোডের যশোর-বেনাপোল ৩৮ কিলোমিটার অংশে ৫টি শতবর্ষী রেইনট্রি গাছ উপড়ে পড়েছে রাস্তায় ও রাস্তার পাশে।

যশোর সরকারি এমএম কলেজের ভূগোল ও পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ছোলজার রহমান বলেন, ‘অনেকে শুনলে হয়ত বিশ্বাস করতে চাইবেন না- এ রোডের বৃক্ষগুলো মানুষকে কতটা রক্ষা করেছে। এই গাছগুলো ঝড়ের সঙ্গে যুদ্ধ করে মানুষকে বাঁচিয়েছে। আমরা পরিবেশবিদরা এটা জানতাম বলেই গাছগুলো রক্ষায় বিভিন্ন সময় আন্দোলন করেছি।’

যশোর শিক্ষাবোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান কলামিস্ট অধ্যাপক আমিরুল আলম খান বলেন, যশোর রোডের গাছ আমাদের ইতিহাস, আমাদের ঐতিহ্য। সর্বোপরি এই বিপুল বিশাল মহীরুহ বীথি আমাদের প্রাকৃতিক রক্ষাপ্রাচীর। সুন্দরবনের পরই যশোর-কুষ্টিয়া অঞ্চলকে এই বৃক্ষপ্রাচীর প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে আমাদের রক্ষা করে।

  যশোরের আলো
  যশোরের আলো
এই বিভাগের আরো খবর