মঙ্গলবার   ০২ জুন ২০২০   জ্যৈষ্ঠ ১৯ ১৪২৭   ১০ শাওয়াল ১৪৪১

  যশোরের আলো
৫২

করোনা মোকাবিলায় নগদ সহায়তা পাবে ৪৮ লাখ প্রান্তিক উদ্যোক্তা

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৩ মে ২০২০  

করোনার কারণে ক্ষতিগ্রস্ত ৪৮ লাখ প্রান্তিক খামারি (মৎস্য ও গবাদিপশু) ও উদ্যোক্তাকে প্রণোদনা হিসেবে নগদ সহায়তা দেয়া হবে ২ হাজার ৪৪৬ কোটি টাকা। স্বল্প ও মধ্যমেয়াদে এ অর্থ বিতরণ করা হবে। এর মধ্যে ১৫ লাখ উদ্যোক্তাকে স্বল্পমেয়াদে দেয়া হবে ১ হাজার ২০৭ কোটি টাকা। আর মধ্যমেয়াদে ৩৩ লাখ উদ্যোক্তা পাবেন ১ হাজার ২২১ কোটি টাকা। প্রণোদনার অঙ্ক নির্ভর করবে খামারের ক্ষয়-ক্ষতির ওপর। মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে এ সহায়তা উদ্যোক্তাদের দেয়া হবে।

জানতে চাইলে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ সচিব রওনক মাহমুদ বলেন, করোনায় অনেক প্রান্তিক খামারি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। তাদের প্রণোদনার আওতায় আনা হচ্ছে। বিশ্বব্যাংক ও নিজস্ব প্রকল্প থেকে প্রণোদনার অর্থের সংস্থান করা হবে। খামারিরা নগদ অর্থ পাবেন, তা দিয়ে গবাদিপশু ও মাছের খাদ্য কিনবেন। তিনি বলেন, অনেক খামারি পরিবহনের অভাবে উৎপাদিত পণ্য বাজারজাত করতে পারছেন না। সেজন্য বিশেষ পরিবহন ব্যবস্থায় সারা দেশে সরবরাহের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এ খাতে আরও ১৮ কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

সূত্র জানায়, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় প্রত্যেক জেলায় ক্ষতিগ্রস্ত উদ্যোক্তাদের তালিকা তৈরি করেছে। এ তালিকায় আছে ৪৮ লাখ ৩৭ হাজার ৫৫৭ জন। প্রণোদনার অর্থ বিতরণের জন্য স্বল্পমেয়াদ হিসেবে বেছে নেয়া হয়েছে মে থেকে অক্টোবর মাস। এ ছয় মাসে ১৫ লাখ ১৩ হাজার ৮৯ খামারির মধ্যে বিতরণ করা হবে ১ হাজার ২০৭ কোটি টাকা। এছাড়া নভেম্বর থেকে ২০২১ সালের জুন পর্যন্ত সময়ে দ্বিতীয় (মধ্যমেয়াদি) প্রণোদনার অর্থ দেয়া হবে। এ সময় আরও ৩৩ লাখ ২৪ হাজার ৬৬৮ উদ্যোক্তার মধ্যে ১ হাজার ২২১ কোটি টাকা নগদ সহায়তা দেয়া হবে।

  যশোরের আলো
  যশোরের আলো
এই বিভাগের আরো খবর