রোববার   ০৯ মে ২০২১   বৈশাখ ২৫ ১৪২৮   ২৭ রমজান ১৪৪২

  যশোরের আলো
সর্বশেষ:
যশোরে দুইজনের দেহে মিলেছে করোনার ভারতীয় ধরন খালেদা জিয়াকে বিদেশে নেয়ার প্রয়োজন নেই : হানিফ ফরিদপুরে ভাইয়ের গুলিতে ভাই আহত চুয়াডাঙ্গার আরও ৩৮৪ কর্মহীন-অসহায়দের মধ্যে খাদ্য বিতরণ দামুড়হুদা সীমান্ত এলাকা থেকে কোটি টাকার মাদকদ্রব্য জব্দ ভারতীয় ড্রাইভারদের অবাধ বিচরণ, ঝুঁকিতে বেনাপোলবাসী মেহেরপুরে দুই হাজার হেক্টর জমিতে কচু চাষ ফরিদপুরে দুঃস্থদের মাঝে ঈদবস্ত্র বিতরণ ফেরি বন্ধ, দৌলতদিয়ায় পারের অপেক্ষায় শত শত যাত্রী কুমারখালীতে দুস্থদের জন্য বিনামূল্যে পোশাকের দোকান বোয়ালমারীতে ইফতার সামগ্রী বিতরণ স্বেচ্ছাসেবক লীগের মেহেরপুরে অসহায় মানুষের মাঝে যুবলীগের সবজি বিতরণ চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল থেকে অক্সিজেন সিলিন্ডার গায়েব!
২৭

কুষ্টিয়ায় তীব্র গরমে লিচুর ফলনে বিপর্যয়ের শঙ্কা

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৪ মে ২০২১  

কুষ্টিয়ার খোকসায় তীব্র দাবদাহে লিচু ফলনে মারাত্মক বিপর্যয় দেখা দিয়েছে। ফলে ক্ষতির মুখে পড়েছেন লিচু চাষি ও ব্যবসায়ীরা।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, চলতি মৌসুমের শুরুতে আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় উপজেলার গোপগ্রাম, সাতপখিয়া, বড়ই চারা, বসোয়া, দশকাহুনিয়া, মানিকাট গ্রামের বাগানে প্রচুর লিচুর গুটি দেখা দেয়। কিন্তু বিগত কয়েক মাস বৃষ্টির দেখা না মেলায় লিচুর গুটি ঝরে যায়। ফল রক্ষায় কৃষকরা প্রথম দিকে বিভিন্ন প্রকার কীটনাশক ও বাগানে পানি সেচ দেয়া শুরু করেন। কিন্তু তাতেও কোনো লাভ হয়নি। বাগানের অধিকাংশ গাছই এখন ফল শূন্য হয়ে পড়েছে।

তবে উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, এ মৌসুম উপজেলায় প্রায় ১০৩ হেক্টর জমিতে লিচু আবাদ হয়েছে।

গোপগ্রাম ইউনিয়নের বাগান মালিক তৌহিদুর রহমান রাজু জানান, যখন লিচু গাছে মুকুল আসে তখন আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় প্রতিটি গাছে প্রচুর ফল ছিল। অনাবৃষ্টি ও প্রচণ্ড দাবদাহে লিচু গাছের ফল ঝরে পড়েছে। ২০ বিঘা জমিতে প্রায় ৫শ গাছ থাকলেও শেষ পর্যন্ত ১৫-১৬ টা গাছে লিচু রক্ষা করা গেছে। গত বছর এ বাগান থেকে প্রায় সাড়ে তিন লাখ টাকার লিচু বিক্রি হয়েছে। কিন্তু এ বছর সব মিলিয়ে ২০ হাজার টাকার ফলও বিক্রি হবে না।

লিচু ব্যবসায়ী হারেজ আলী জানান, এক লাখ ৮০ হাজার টাকায় তিনি দশকাহুনিয়া গ্রামে একটি লিচুর বাগান ইজারা নিয়েছিলেন। প্রথম দিকে তার বাগানে প্রচুর ফল ছিল। কিন্তু অতিরিক্ত গরমে বাগানে ৬৮ গাছের একটিতেও ফল নেই।

এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সবুজ কুমার সাহা জানান, প্রচণ্ড গরমে কিছু ফলন নষ্ট হতে পারে। তবে চলতি বছর লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে অধিক লিচু আবাদ হয়েছে।

  যশোরের আলো
  যশোরের আলো
এই বিভাগের আরো খবর