বুধবার   ২৭ জানুয়ারি ২০২১   মাঘ ১৩ ১৪২৭   ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪২

  যশোরের আলো
সর্বশেষ:
রাজবাড়ীতে রাইস ট্রান্সপ্লান্টার যন্ত্রের মাধ্যমে ধানের চারা রোপণ ঝিনাইদহে প্রায় দুই কোটি টাকার মাদকদ্রব্য ধ্বংস মেহেরপুরে `বাপাউবো` দপ্তরের নতুন অফিসের উদ্বোধন মেহেরপুরে জাতীয় অলিম্পিয়াডের পুরস্কার বিতরণী বেনাপোল-পেট্রাপোল বন্দরে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ মাগুরায় নিরাপদ সবজি বিক্রয় কেন্দ্রের উদ্বোধন বেনাপোলে আন্তর্জাতিক কাস্টমস দিবস পালিত সারাদেশে ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে একযোগে টিকাদান
১২২১

খালেদা-তারেককে ‘মাইনাস’ করতে সক্রিয় খোদ বিএনপি নেতারাই!

নিউজ ডেস্ক:

প্রকাশিত: ৯ জানুয়ারি ২০২১  

বিএনপি এবং চক্রান্ত-ষড়যন্ত্র, একে অপরের সমার্থক শব্দ। সে কারণেই রাজনৈতিকভাবে দলটি বেশিদূর অগ্রসর হতে পারেনি।

লাগামহীন দুর্নীতি, লুটপাট, কমিশন বাণিজ্য, উন্নয়নের নামে বরাদ্দের টাকা ভাগাভাগি, অর্থের বিনিময়ে দেশে অবাধে অস্ত্র ও মাদক ব্যবসার প্রসার ঘটানোর জন্যই জনমনে ‘ঘৃণার পাত্র’ হয়ে রয়ে গেছে দলটি। জানা গেছে, নিজেদের মধ্যে অনৈক্য ও ক্ষমতার লোভে কেউ কাউকে সহ্য করতে পারেনা। একে-অপরকে টপকে যেতে চায়। ‘দশে মিলি করি কাজ’ নীতিতে দলের হয়ে কাজ করেন না বিএনপির শীর্ষ নেতারা।

চমকপ্রদ নতুন খবর হলো, দলটির ভেতরে এমন এক শক্তির উত্থান হয়েছে, যারা চান না বিএনপির নেতৃত্বে খালেদা জিয়া কিংবা তারেক রহমান কেউ থাকুক। তাদের স্থলাভিষিক্ত হয়ে ‘নেতৃত্বের বাহাদুরি’ করতে চান নিজেরাই। সে অনুযায়ী ক্যু-ষড়যন্ত্রের জালও বিছিয়েছেন বলে বিশ্বস্ত সূত্রে খবর পাওয়া গেছে।

সূত্রের তথ্যমতে, আন্দোলন ও নির্বাচনে একের পর এক ব্যর্থ হওয়ার পর নিজেদের অবস্থান জানান দিতে আগুন সন্ত্রাসের পথ বেছে নেয় বিএনপি। কিন্তু সরকারের বুদ্ধিদীপ্ত তৎপরতায় তাদের সেই প্রয়াস ভেস্তে গেলে দলটির একাংশ নড়ে বসে। নেতাকর্মীরা সিদ্ধান্ত নেন, মুখে মুখে বিএনপি হলেও অন্তরে তারা ঠিকই লালন করবেন সুবিধাবাদী চেতনা। তখন থেকেই ‘সরিষাতেই ভূত’ ঢোকে বিএনপির। আসে দলীয় রাজনীতিতে গা ছাড়া মনোভাব। যারই ধারাবাহিকতায় নিজ সুবিধার স্বার্থে দলের নেতারা চান চলমান বিএনপির নেতৃত্বে পরিবর্তন আসুক। মাইনাস হোক খালেদা-তারেক।

অনুসন্ধানে জানা গেছে, বর্তমানে বিএনপির সিনিয়র নেতাদের বড় একটি অংশই তৃতীয় রাজনৈতিক শক্তির সঙ্গে যোগসাজশ করছে। তারা চান সরকার পতন আন্দোলনের নামে দলের ভেতর আধিপত্য বিস্তার করে দলীয় চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে মাইনাস করতে। এজন্য বিভিন্ন মহলে দৌড়-ঝাঁপও শুরু করেছেন তারা।

তবে তাদের এই ‘চালাকি’ বিএনপি হাইকমান্ডের একাংশ বুঝতে পেরেছে। তাদের পক্ষ থেকে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, তারা ভিন্ন কোনো প্রক্রিয়ায় সরকারের পতন চান না। এ ক্ষেত্রে জোট ও ফ্রন্টের শরিক দলের নেতারাও তাদের সঙ্গে একাত্ম রয়েছেন। কিন্তু জোটনেতাদের সঙ্গে কথা বলে মেলেনি সত্যতা। তাদের ভাষ্য, এ ব্যাপারে অবহিত নন তারা। জানেন না কিছুই। তাই মন্তব্য করার প্রশ্নই আসেনা।

বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে এই প্রতিবেদকের পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হয় বিএনপির জ্যেষ্ঠ নেতাদের সঙ্গে। অভিন্ন সুরে তারা বলেন, বয়স বাড়লে কিংবা বার্ধক্য এলে তখন সবাই বোঝা মনে করে। তাদেরকেও তেমনটি মনে করা হচ্ছে। তবে দলীয় নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানকে দল থেকে হটানোর ষড়যন্ত্রের গুঞ্জনটি দুঃখজনক। এতোদিন তাদের খেয়ে-পরে এখন তাদের বুকেই ছুরি মারার অপচেষ্টায় লিপ্ত হয়েছেন দলের সুবিধাবাদীরা।

ক্যু-ষড়যন্ত্রকারীদের পরিচয় জানতে চাইলে তারা প্রশ্ন এড়িয়ে গিয়ে বলেন, সময়ই সব জবাব দিয়ে দেবে। তাই ধৈর্য ধরুন। শিগগিরই তাদের মুখোশ উন্মোচিত হবে। জাতিসহ বিশ্ববাসী জেনে যাবে, কারা খালেদা-তারেককে মাইনাস করতে চান? কারা সেই বেইমান?

  যশোরের আলো
  যশোরের আলো
এই বিভাগের আরো খবর