বুধবার   ১৯ জুন ২০২৪   আষাঢ় ৪ ১৪৩১   ১২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

  যশোরের আলো
সর্বশেষ:
সেন্টমার্টিনে বিজিবি ও পুলিশকে সতর্ক থাকার নির্দেশ বাংলাদেশকে সুপার এইটে তুললো বোলাররা দলীয় নেতাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় আসুন ত্যাগের মহিমায় দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করি: প্রধানমন্ত্রী চামড়া কেনায় ট্যানারি মালিকরা ২৭০ কোটি টাকা ঋণ পাচ্ছে
১৮

জাতীয় মুদ্রায় লেনদেনের জন্য প্ল্যাটফরম তৈরি করছে ব্রিকস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

প্রকাশিত: ১১ জুন ২০২৪  

উদীয়মান জাতীয় অর্থনীতির জোট ব্রিকস একটি প্ল্যাটফরম তৈরিকে অগ্রাধিকার দিচ্ছে, যার মাধ্যমে এর সদস্য দেশগুলো জাতীয় মুদ্রায় লেনদেন পরিচালনা করতে পারবে। রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ সোমবার এ কথা বলেছেন।

রাশিয়ার নিজনি নোভগোরোডে অর্থনৈতিক জোটের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের এক বৈঠকে বক্তৃতাকালে লাভরভ বলেন, ব্রিকস গত বছর জোহানেসবার্গে অনুষ্ঠিত সম্মেলনের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের জন্য সক্রিয়ভাবে কাজ করছে, বিশেষ করে আন্তর্জাতিক মুদ্রা ও আর্থিক ব্যবস্থার উন্নতির জন্য। পারস্পরিক বাণিজ্যে জাতীয় মুদ্রায় নিষ্পত্তির জন্য একটি প্ল্যাটফরম তৈরি করা হবে।

তিনি আরো জানান, সম্প্রতি অভূতপূর্ব সম্প্রসারণের প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যাওয়া ব্রিকস জোট অংশীদারদের মধ্যে সরাসরি সম্পৃক্ততার কাঠামোর সমন্বয় করতে চাইছে।

রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের এজেন্ডা ব্যাপক। এটি এমন বিষয়গুলো অন্তর্ভুক্ত করে, যা ন্যায্য ভিত্তিতে ভবিষ্যত বিশ্ব ব্যবস্থাকে সরাসরি প্রভাবিত করবে।’

এই মাসের শুরুর দিকে রুশ অর্থমন্ত্রী আন্তন সিলুয়ানভ জানান, ব্রিকস অর্থমন্ত্রীরা আর্থিক লেনদেনের সুবিধার্থে একটি সাধারণ ব্লকচেইনভিত্তিক সিস্টেম চালু করার সম্ভাবনা মূল্যায়ণ করছেন।

জানুয়ারিতে রুশ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রধান এলভিরা নাবিউলিনা বলেন, ব্রিকসের সহযোগী দেশগুলোর সঙ্গে জাতীয় মুদ্রায় রাশিয়ার লেনদেনের অংশ বেড়ে ৮৫ শতাংশ হয়েছে, যা দুই বছর আগে ছিল ২৬ শতাংশ।

ব্রিকস মূলত ব্রাজিল, রাশিয়া, ভারত, চীন ও দক্ষিণ আফ্রিকা নিয়ে গঠিত। তবে ইরান, ইথিওপিয়া, মিসর ও সংযুক্ত আরব আমিরাত ২০২৪ সালের প্রথম দিকে জোটটিতে যোগদান করে। সৌদি আরব ২০২৩ সালে ফোরামে যোগদানের জন্য আনুষ্ঠানিক আমন্ত্রণ পায় এবং তাদের আগ্রহের বিষয়টি নিশ্চিত করে।

পরে গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, তেল সমৃদ্ধ দেশটি এখনো সদস্য পদ বিবেচনা করছে। এ ছাড়া আর্জেন্টিনাকেও আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। কিন্তু দেশটির প্রেসিডেন্ট জাভিয়ের মিলেই এই পদক্ষেপের বিরোধিতা করে প্রস্তাবটি প্রত্যাখ্যান করেছিলেন।

২০০৯ সালে গঠিত ব্রিকস অর্থনৈতিক জোট নিজেদের পশ্চিমা-আধিপত্যশীল আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের বিকল্প হিসেবে উপস্থাপন করে। স্ট্যাটিস্টা অ্যানালিটিকাল কম্পানির মতে, ২০২০ সালে ক্রয় ক্ষমতার সমতার ক্ষেত্রে ব্রিকস বিশ্বের মোট জিডিপির হিসাবে জি৭ দেশগুলোকেও ছাড়িয়ে গেছে।

২০২৩ সালের হিসাবে, বিশ্বব্যাপী জিডিপির মোট ৩২ শতাংশ ব্রিকসের অধীনে রয়েছে।

সূত্র : আরটি

  যশোরের আলো
  যশোরের আলো
এই বিভাগের আরো খবর