বৃহস্পতিবার   ০১ অক্টোবর ২০২০   আশ্বিন ১৬ ১৪২৭   ১৩ সফর ১৪৪২

  যশোরের আলো
২০৬

ঝিনাইদহে মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষুধ বিক্রি করায় জরিমানা

নিজস্ব প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

ঝিনাইদহ শহরে ফার্মেসিতে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এ সময় ৩টি ফার্মেসিতে মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষুধ পাওয়ায় ১২ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

বুধবার (১২ ফেব্রুয়ারি) সকালে ফার্মেসিতে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ইরফানুল হক।

জানা যায়, প্রায় এক মাস যাবত জেলা শহরের বিভিন্ন ঔষুধ ফার্মেসিতে পূর্বের ৫ শতাংশ বা ৭ শতাংশ কমিশনে ঔষুধ বিক্রি বন্ধ করে দেয় বিক্রেতারা। পরে তারা কোম্পানির এমআরপি রেটে বিক্রি শুরু করে। যা কিনতে গিয়ে অনেকটা নাভিশ্বাস ওঠে ক্রেতাদের মধ্যে। 

এসব অভিযোগের প্রেক্ষিতে শহরের প্রায় ১৫টি ফার্মেসিতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়েছে। এদের মধ্যে ৩টি ফার্মেসিতে ১২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।  

এ সময় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সুচন্দন মন্ডল, জেলা ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. নাজমুল হাসান উপস্থিত ছিলেন।

অভিযানের ব্যাপারে ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ইরফানুল হক জানান, সরকারি নির্দেশনা না থাকলেও ফার্মেসিতে কমিশন বাদে এমআরপি রেটে ঔষুধ বিক্রি হচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। 

ঘটনার সত্যতা পেয়ে এবং মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষুধ রাখায় শহরের মাসুদ ফার্মাকে ২ হাজার, আক্তার ফার্মেসিকে ৫ হাজার ও তাজমহল ফার্মেসিকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। সে সময় বাকিদের সতর্ক করা হয়েছে ভবিষ্যতে যেন এমন অনিয়ম না করা হয়।

এ দিকে ক্ষুব্ধ সাধারণ মানুষ অভিযোগ করে বলেন, দীর্ঘদিন ধরে ইচ্ছামত বিক্রেতারা ঔষুধ বিক্রি করে আসছে কিন্তু ঔষধ প্রশাসন কোনো তদারকি করে না। পার্শ্ববর্তী বিভিন্ন জেলায় ৫ শতাংশ, ৭ শতাংশ, ১০ শতাংশ হারে ঔষুধ বিক্রি হচ্ছে। কিন্তু ঝিনাইদহে এর ব্যতিক্রম। সরকারের উচিত উপর মহল থেকে এর তদারকি করা এবং যারা এর সঙ্গে জড়িত তাদের শাস্তির আওতায় আনা।

এ ব্যাপারে ঝিনাইদহ সিভিল সার্জন ডা. সেলিনা বেগম সাংবাদিকদের জানান, ‘কোনো ক্রমেই মেয়াদোত্তীর্ণ ঔষুধ খাওয়া যাবে না। মেয়াদ শেষ হলে ঔষুধ যে উপাদান দিয়ে তৈরি হয় তার গুণগতমান নষ্ট হয়ে যায়। যা খেলে মানবস্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতির কারণ হতে পারে। এমনকি পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে।

  যশোরের আলো
  যশোরের আলো
এই বিভাগের আরো খবর