শুক্রবার   ০৫ জুন ২০২০   জ্যৈষ্ঠ ২১ ১৪২৭   ১৩ শাওয়াল ১৪৪১

  যশোরের আলো
৬৪৯

পরী মনির নতুন প্রতিজ্ঞা

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৬ এপ্রিল ২০১৯  

ঢাকাই ছবির জনপ্রিয় এক নাম পরী মনি। ২০১৩ সালে শাহ আলম মণ্ডলের ‘ভালোবাসা সীমাহীন’ নামের একটি ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হওয়ার মধ্য দিয়ে রূপালি জগতে পা রাখেন। ২০১৪ সালের ফেব্রুয়ারিতে নজরুল ইসলাম খান পরিচালিত ‘রানা প্লাজা’ ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হয়ে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন তিনি। তার প্রথম ছবি ‘সীমাহীন ভালোবাসা’ মুক্তি পায় ২০১৫ সালে। এই ছবি মুক্তির আগেই ৩০টি ছবিতে নাম লিখিয়ে ব্যাপক সাড়া ফেলেন পরী। সে সময় তার চুক্তিবদ্ধ ছবিগুলোর নির্মাণ বাজেট ছিল ৮০ লাখ থেকে শুরু করে দেড় কোটি টাকা পর্যন্ত। এ হিসেবে সে সময় পরী মনির ওপর ৩০ কোটি টাকারও বেশি বিনিয়োগ করেছেন প্রযোজকেরা। ছবি রিলিজের আগে ঢাকাই ছবির প্রেক্ষাপটে এত বড় বিনিয়োগ এর আগে আর কোনো নায়িকার ক্ষেত্রে হয়নি- এই প্রতিবেদককে এমনটাই জানিয়েছিলেন বেশ কয়েকজন প্রযোজক ও পরিচালক। আর এই ঘটনা ঘটেছিল নায়িকা সংকটের কারণেই। তখন সবচেয়ে জনপ্রিয় নায়িকা মাহিয়া মাহি জাজ মাল্টিমিডিয়ার বাইরে কাজ করতেন না। ফলে মাহির পর প্রযোজকদের প্রথম পছন্দের তালিকায় জায়গা করে নিয়েছিলেন পরী মনি।

মূলত পরী মনির গ্ল্যামার আর তার পরিচালকদের মৌখিক সার্টিফিকেটের ওপর ভর করেই পরী মনির ওপর কোটি কোটি টাকা ইনভেস্ট করতে থাকেন প্রযোজকরা। পরী মনিও নিজের ক্যারিয়ারের দিকে না তাকিয়ে চুক্তিবদ্ধ হতে থাকেন একর পর এক ছবিতে। তবে পরী মনি সেসময় ছবি বাছাই করতে ভুল করেছিলেন। ফলস্বরূপ পরী মনির ক্যারিয়ারে হাতেগোনা দু-একটি ছবি ছাড়া বেশির ভাগ ছবিই ব্যবসা সফল হয়নি।

পরী মনিও একসময় এসে নিজের ভুল বুঝতে পারেন। বিশেষ করে ২০১৬ সালে জাজ মাল্টিমিডিয়া প্রযোজিত ‘রক্ত’ ছবিতে অভিনয় করার পর তার বোধোদয় ঘটতে থাকে। ফলস্বরূপ ২০১৬ সালের পর যেমন তেমন ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হওয়া থেকে দূরে থাকেন। তবে তার পুরোনো কিছু ছবি মুক্তি পায় এই সময়গুলোতে। এ সময়েই পরী মনির হাতে আসে গিয়াস উদ্দিন সেলিমের ‘স্বপ্নজাল’। ছবিটি মুক্তি পায় ২০১৮ সালের ৬ এপ্রিল। এই ছবিটি পরী মনির ক্যারিয়ারে যোগ করে ভিন্ন মাত্রা। পরী মনিও উপলব্ধি করেন তার কি করা উচিত আর কী করা উচিত নয়। ফলে এই দীর্ঘ সময়ে মালেক আফসারীর ‘অন্তর জ্বালা’ ছবিসহ ভালো মানের ছবিগুলোতেই চুক্তিবদ্ধ হতে থাকেন। স্বপ্নজ্বাল মুক্তি পাওয়ার পর নতুন আর কোনো ছবিতে দেখা যায়নি এই নায়িকাকে। কারণ এ ছবিটি পরী মনির রুচি একেবারে পরিবর্তন করে দেয়। তবে নতুন ছবিতে চুক্তিবদ্ধ না হলেও পরী মনি প্রথমবারের মতো হাজির হন  একটি ওয়েব সিরিজে। এটিরও পরিচালক গিয়াস উদ্দিন সেলিম।

দেড় বছর পর এ বছরের ৩ এপ্রিল তিনি চুক্তিবদ্ধ হন নতুন ছবিতে। চয়নিকা চৌধুরীর ‘বিশ্ব সুন্দরী’ ছবির মাধ্যমে আবারও রূপালি পর্দায় হাজির হবেন তিনি। এতে তার বিপরীতে থাকছেন ঢাকাই ছবির নতুন ক্রেজ সিয়াম আহমেদ। এই দীর্ঘ সময় ধরে ছবি না করে বসে থাকার কারণ কি? জবাবে পরী মনি জানালেন তার নতুন প্রতিজ্ঞার কথা। পরী মনি বলেন, ‘না বুঝে অনেক মানহীন ছবিতে কাজ করেছি। এখন থেকে আর কোনো মানহীন ছবিতে কাজ করব না। এ জন্যই গত দেড় বছর কোনো নতুন ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হইনি। ভালো ছবি ছাড়া আর কাজ করব না।’

  যশোরের আলো
  যশোরের আলো
এই বিভাগের আরো খবর