রোববার   ০৯ মে ২০২১   বৈশাখ ২৫ ১৪২৮   ২৭ রমজান ১৪৪২

  যশোরের আলো
সর্বশেষ:
যশোরে দুইজনের দেহে মিলেছে করোনার ভারতীয় ধরন খালেদা জিয়াকে বিদেশে নেয়ার প্রয়োজন নেই : হানিফ ফরিদপুরে ভাইয়ের গুলিতে ভাই আহত চুয়াডাঙ্গার আরও ৩৮৪ কর্মহীন-অসহায়দের মধ্যে খাদ্য বিতরণ দামুড়হুদা সীমান্ত এলাকা থেকে কোটি টাকার মাদকদ্রব্য জব্দ ভারতীয় ড্রাইভারদের অবাধ বিচরণ, ঝুঁকিতে বেনাপোলবাসী মেহেরপুরে দুই হাজার হেক্টর জমিতে কচু চাষ ফরিদপুরে দুঃস্থদের মাঝে ঈদবস্ত্র বিতরণ ফেরি বন্ধ, দৌলতদিয়ায় পারের অপেক্ষায় শত শত যাত্রী কুমারখালীতে দুস্থদের জন্য বিনামূল্যে পোশাকের দোকান বোয়ালমারীতে ইফতার সামগ্রী বিতরণ স্বেচ্ছাসেবক লীগের মেহেরপুরে অসহায় মানুষের মাঝে যুবলীগের সবজি বিতরণ চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতাল থেকে অক্সিজেন সিলিন্ডার গায়েব!
২৯২৫

বিএনপির কাছে এক আতঙ্কের নাম ‘নির্বাচন’

নিউজ ডেস্ক:

প্রকাশিত: ২৯ জানুয়ারি ২০২১  

ইউনিয়ন পরিষদ থেকে শুরু করে জাতীয় সংসদ নির্বাচন যেনো বিএনপির কাছে এক আতঙ্কের নাম। নির্বাচনে অংশগ্রহণের অর্থই যেনো বিপুল ব্যবধানে শোচনীয় পরাজয়। পরাজয়ের গ্লানি সইতে পারছে না বিএনপির হাইকমান্ড।

চলমান পৌরসভা নির্বাচনে তিনটি ধাপেই দেশব্যাপী বিএনপি প্রার্থী অপমানজনক পরাজয়। বিএনপিকে ভোট দিতে সাধারণ মানুষের ব্যাপক অনীহা। যদিও বিএনপির এমন নির্বাচনী দুর্দশার জন্য অতীত অপকর্ম, সীমাহীন দুর্নীতি, লুটপাট, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদে পৃষ্ঠপোষকতাকে দায়ী করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। দলীয় কর্মীরাই বিএনপি প্রার্থীদের ভোট দেন না, বিএনপির রাজনীতি করাই যেনো অভিশাপের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, নির্বাচনের নাম শুনলেই আঁতকে উঠছেন বিএনপির নীতি-নির্ধারক, প্রার্থী ও দলীয় নেতা-কর্মীরা। জনবিচ্ছিন্ন ও জনধিকৃত বিএনপির জন্য নির্বাচন যেনো কাল হয়ে দাঁড়িয়েছে। সাধারণ মানুষও বিএনপিকে দুচোখে সহ্য করতে পারছে না। যার ফলে প্রতিটি নির্বাচনে বিএনপিকে চরম লজ্জাজনক পরিস্থিতির সামনে পড়তে হচ্ছে। নির্বাচন এলে তৃণমূলে গণজোয়ার সৃষ্টির বদলে সম্ভাব্য পরাজয় ও অপমানের গ্লানি ভর করছে দলটির নেতা-কর্মীদের উপর। আর কেন্দ্র বিষয়টি অনুধাবন করেও প্রতিবার দলীয় প্রার্থীদের অগ্নিপরীক্ষার মুখে ফেলছে। এর পেছনে অবশ্য কাজ করছে মনোনয়ন বাণিজ্যের সুদৃঢ় একটি সিন্ডিকেট। যারা বিএনপির রাজনীতিতে অর্থ রোজকারের পন্থা হিসাবে গ্রহণ করেছেন। যারা পরাজয় জেনেও অর্থের লোভে বিএনপির সরল নেতা-কর্মীদের আকাশ-কুসুম স্বপ্ন দেখিয়ে মনোনয়নের নামে তাদের সর্বস্ব হাতিয়ে নিচ্ছে।

বিশ্লেষকরা আরো বলছেন, ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার মতো জনসমর্থন বা লোকবল নেই বিএনপির। পুরো দেশজুড়ে বিএনপি অগোছালো এবং এলোমেলো। দল গোছানো বাদ দিয়ে নির্বাচন নিয়ে বেশি ব্যস্ত মির্জা ফখরুলরা। যার কারণে পরাজয় ও গ্লানি বিএনপির পিছু ছাড়ছে না। আর ক্রমাগত পরাজয়ের ফলে বিষাদগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন বিএনপির নেতা-কর্মীরা। নির্বাচন এলেই নির্ঘুম রাত কাটান তারা। নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় যার কারণে আস্থা হারিয়ে ফেলছেন দলটির কর্মীরা। নির্বাচনী আতঙ্কে ভুগে বিএনপির অনেক নেতাই এখন মানসিক রোগেও আক্রান্ত হয়েছেন বলেই প্রতীয়মান হচ্ছে।

  যশোরের আলো
  যশোরের আলো
এই বিভাগের আরো খবর