বুধবার   ১৯ জুন ২০২৪   আষাঢ় ৬ ১৪৩১   ১২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

  যশোরের আলো
সর্বশেষ:
সেন্টমার্টিনে বিজিবি ও পুলিশকে সতর্ক থাকার নির্দেশ বাংলাদেশকে সুপার এইটে তুললো বোলাররা দলীয় নেতাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় আসুন ত্যাগের মহিমায় দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করি: প্রধানমন্ত্রী চামড়া কেনায় ট্যানারি মালিকরা ২৭০ কোটি টাকা ঋণ পাচ্ছে
৪৫১

মণিরামপুরে এসিডে স্ত্রীর চোখ নষ্টের দায়ে স্বামীর যাবজ্জীবন

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৬ জুন ২০২৩  

যশোরের মণিরামপুরে এসিড দিয়ে রাজিয়া খাতুন নামে এক গৃহবধূর চোখ নষ্টের দায়ে তার স্বামী কামরুজ্জামানকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

রোববার (২৫ জুন) বিকেলে এসিড অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনাল ও স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল-৪ এর বিচারক মো. তাজুল ইসলাম এ রায় দেন। এ সময় আসামিকে অর্থদণ্ডও দেয়া হয়। দণ্ডপ্রাপ্ত কামরুজ্জামান বাঙ্গীপুর গ্রামের মৃত আব্দুস সামাদের ছেলে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পিপি অ্যাডভোকেট ইদ্রিস আলী।

মামলার অভিযোগে জানা গেছে, ২০১৮ সালের ২৮ জানুয়ারি রাজিয়া খাতুন স্বামী কামরুজ্জামান ও সন্তান নিয়ে বাবার বাড়ি ছিলেন। এ দিন ভোর রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় রাজিয়া খাতুনের চোখে আসামি কামরুজ্জামান এসিড দেন। এ সময় রাজিয়ার চিৎকারে স্বজনরা সেখানে এসে কামরুজ্জামানকে পালিয়ে যেতে দেখেন। এরপর তারা রাজিয়া খাতুনকে প্রথমে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। অবস্থার অবনতি হলে পরে ঢাকায় নিয়ে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় রাজিয়া খাতুনের ভাই আবু তাহের বাদী হয়ে কামরুজ্জামানকে আসামি করে এসিড অপরাধ দমন আইনে মণিরামপুর থানায় মামলা করেন। এ মামলার তদন্ত শেষে ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকায় কামরুজ্জামানকে অভিযুক্ত ওই বছরের ৪ নভেম্বর আদালতে চার্জশিট জমা দেন তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই তোবারেক আলী।

দীর্ঘ সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আসামি কারুজ্জামানের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় বিচারক যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬ মাসের কারাদণ্ডের আদেশ দেন। সাজাপ্রাপ্ত কামরুজ্জামান কারাগারে আটক আছে।

  যশোরের আলো
  যশোরের আলো
এই বিভাগের আরো খবর