বৃহস্পতিবার   ১৯ মে ২০২২   জ্যৈষ্ঠ ৫ ১৪২৯   ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩

  যশোরের আলো
৫৩

মেডিকেলে পড়বে চৌগাছার কাজল, দায়িত্ব নিলেন ইউএনও

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৪ এপ্রিল ২০২২  

যশোর মেডিকেল কলেজে এমবিবিএস কোর্সে ভর্তির সুযোগ পেয়েছেন কাজল মণ্ডল। ছেলের মেডিকেলে ভর্তি ও লেখাপড়ার খরচ নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েন চৌগাছা উপজেলার রাণীয়ালি গ্রামের সুধাংশু কুমার মণ্ডল ও রেবা রানী মণ্ডল দম্পতি। কাজলের পরিবারের পড়াশোনার অনিশ্চয়তার বিষয়টি জানতে পারেন চৌগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ইরুফা সুলতানা।

শনিবার (২৩ এপ্রিল) কাজল মণ্ডলের বাড়িতে গিয়ে পরিবারের সদস্যদের মিষ্টিমুখ করান। একই সঙ্গে তার পড়ালেখার খরচ বহনের ঘোষণা দেন তিনি।

এসময় কাজলের মা রেবা রানী মণ্ডল আপ্লুত হয়ে কেঁদে ফেলেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইরুফা সুলতানা কাজলের মায়ের সঙ্গে দীর্ঘ সময়ের কথোপকথনে মনোবল ও সাহস ধরে রাখতে বলেন। তিনি কাজলদের পরিবারের খোঁজ-খবর নেন এবং তার ভর্তির খরচ নিজে দেবেন বলে আশ্বস্ত করেন। অন্যান্য সব বিষয়ে উপজেলা ও জেলা প্রশাসন পাশে থাকবে বলে ঘোষণা দেন।

মেডিকেলে ভর্তির সুযোগ পাওয়া কাজল মণ্ডল উপজেলার পাশাপোল ইউনিয়নের রাণিয়ালী গ্রামের সুধাংশু কুমার মণ্ডলের ছেলে। তারা এক বোন এক ভাই। বড় বোন ঝিনাইদহের কেসি কলেজে অনার্স তৃতীয় বর্ষে অধ্যয়নরত।

রেবা রানী মণ্ডল জানান, তাদের সামান্য ভিটা বাড়িটুকুই আছে। আর কোনো জমি নেই। কাজলের বাবা পরের জমিতে কৃষি শ্রমিক হিসেবে কাজ করেন। একটি পাটখড়ির দেওয়ালে টিনের ছাউনি দেয়া ঝুপড়ি ঘরে তারা বসবাস করেন।

কাজল মণ্ডল জানান, ২০১৯ সালে গ্রামের রাণিয়ালী মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে জিপিএ-৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হওয়ার পর শত অভাবের পরও যশোর সরকারি সিটি কলেজে ভর্তি করে তার পরিবার। সেখানে একটি ছোট বাসা ভাড়া নেওয়া হয়। কাজলের মা রেবা রানী শহরে ছেলেকে রান্না করে দেওয়ার জন্য সেখানে থেকে গৃহকর্মীর কাজ করে ঘরভাড়া ও কোচিংয়ের খরচ যোগান দেন।

সুধাংশু মণ্ডল বলেন, আমার দুই সন্তান ছোটবেলা থেকে মেধাবী হওয়ায় স্ত্রী রেবার উৎসাহে শত অভাবের মধ্যেও ওদের লেখাপড়া বাদ দিতে বলিনি। স্থানীয়রাও বিভিন্নভাবে তার পাশে দাঁড়িয়েছেন। গ্রামের মেম্বার (ইউপি সদস্য) গোবিন্দ কুমার কাজলের এসএসসির ফরম পূরণের সব খরচ বহন করেছেন। ইউপি চেয়ারম্যান ওবাইদুল ইসলাম সবুজ যথাসাধ্য পাশে থেকে সহযোগিতা করেছেন।

এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ইরুফা সুলতানা বলেন, অদম্য মেধাবী কাজলের পাশে চৌগাছা উপজেলা প্রশাসন ও যশোর জেলা প্রশাসন সবসময় থাকবে। জেলা প্রশাসক স্যারের সঙ্গে কথা বলেছি। কাজলের ভর্তির টাকা আমি নিজে দেব। তার লেখাপড়ার খরচ চালানোর জন্য ব্যবস্থা করা হবে।

  যশোরের আলো
  যশোরের আলো
এই বিভাগের আরো খবর