বুধবার   ১৯ জুন ২০২৪   আষাঢ় ৬ ১৪৩১   ১২ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

  যশোরের আলো
সর্বশেষ:
সেন্টমার্টিনে বিজিবি ও পুলিশকে সতর্ক থাকার নির্দেশ বাংলাদেশকে সুপার এইটে তুললো বোলাররা দলীয় নেতাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় আসুন ত্যাগের মহিমায় দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করি: প্রধানমন্ত্রী চামড়া কেনায় ট্যানারি মালিকরা ২৭০ কোটি টাকা ঋণ পাচ্ছে
২০

মোট মৃত্যুর তৃতীয় কারণ ‘সিওপিডি’, বাঁচতে যেসব পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের

নিউজ ডেস্ক:

প্রকাশিত: ১০ জুন ২০২৪  

বিশ্বজুড়ে সিওপিডিতে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বেড়েছে, একইসঙ্গে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে মৃত্যুহারও। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার জরিপ অনুযায়ী, সারা পৃথিবীতে মোট মৃত্যুর তৃতীয় কারণ এটি। সে হিসাবে রোগটিতে আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে প্রতি বছর ৩২ লাখেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়।

বিশেষজ্ঞদের মতে, রোগটি একবার হলে পরে পূর্ণ নিরাময় হয় না। তবে সচেতন জীবনযাপনের মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব। এজন্য সবার আগে ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য পরিহারের পরামর্শ তাদের।

রোববার (৯ জুন) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে শ্বাসকষ্টজনিত রোগ সিওপিডি বিষয়ক মাসিক সেন্ট্রাল সেমিনারে বক্তারা এসব তথ্য জানান।

বিশেষজ্ঞরা বলেন, সিওপিডি আক্রান্ত রোগীদের জন্য ধূমপান ও তামাক রীতিমতো প্রাণঘাতি বিষ তুল্য। ফলে কারও মধ্যে এসব অভ্যাস থাকলে দ্রুত তা পরিহার করতে হবে। পরোক্ষ ধূমপানও এড়িয়ে চলা জরুরি। এমনকি আবদ্ধ রান্নাঘরের ধোঁয়া থেকেও নিজেকে বাঁচিয়ে চলতে হবে।

সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. দীন মো. নূরুল হক বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় দেশের প্রথম ও প্রধান মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ সামাজিক দায়িত্ব রয়েছে। রোগ প্রতিরোধে মানুষের মধ্যে জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে জাতীয় পর্যায়ে কর্মসূচি গ্রহণ করতে হবে। এছাড়াও বছরব্যাপী পরামর্শমূলক ও জনসচেতনতামূলক নানা প্রচার-প্রচারণা ধর্মী কার্যক্রম নিতে হবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (একাডেমিক) অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান বলেন, সিওপিডি থেকে মানুষকে রক্ষা করতে হলে ধূমপান, বায়ুদূষণ, জৈব জ্বালানি প্রতিরোধ করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা অনুযায়ী বাংলাদেশকে তামাক মুক্ত করতে হবে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের আশপাশে সিগারেট বিক্রি বন্ধ করতে হবে।

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ তানভীর ইসলাম ও সহকারী অধ্যাপক ডা. সম্প্রতি ইসলাম। সভাপতিত্ব করেন অবস অ্যান্ড গাইনি বিভাগের অধ্যাপক ডা. তৃপ্তি রানী দাস। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ভাইরোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. আফজালুন্নেছা।

এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (গবেষণা ও উন্নয়ন) অধ্যাপক ডা. মো. মনিরুজ্জামান খান, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা. এবিএম আব্দুল হান্নান, প্রক্টর অধ্যাপক ডা. মো. হাবিবুর রহমান দুলাল। এছাড়াও সেমিনারে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিন, চেয়ারম্যান, শিক্ষক, চিকিৎসক ও রেসিডেন্ট, ছাত্রছাত্রীরা উপস্থিত ছিলেন।

  যশোরের আলো
  যশোরের আলো