রোববার   ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১   ফাল্গুন ১৬ ১৪২৭   ১৬ রজব ১৪৪২

  যশোরের আলো
সর্বশেষ:
মাগুরায় হত্যা মামলার আসামি আটক মাগুরায় ৭ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ তিন কিশোর হত্যায় যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রের ১২ জন অভিযুক্ত মাগুরায় মসলা জাতীয় ফসলের প্রযুক্তি হস্তান্তর বিষয়ে কর্মশালা ঝিনাইদহ পাবলিকিয়ান এসোসিয়েশনের মিলনমেলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ঝিনাইদহে স্কুল বিজ্ঞান বিতর্ক প্রতিযোগিতা-২০২১ অনুষ্ঠিত ভেড়ামারায় তিন দিনব্যাপী উদ্যোক্তা মেলার উদ্বোধন কুষ্টিয়ায় দুই কেজি গাঁজাসহ আটক ১
৯৪

রাজনীতি থেকে ১ মাসের জন্য বিদায় নিলেন তারেক রহমান

নিউজ ডেস্ক:

প্রকাশিত: ২২ জানুয়ারি ২০২১  

১৪ বছর থেকে ক্ষমতার বাইরে থাকা, বেগম জিয়ার মুক্তিতে ব্যর্থতা, দলীয় বিশৃঙ্খলা, সিনিয়র-জুনিয়র দ্বন্দ্ব এবং পৌরসভা নির্বাচনগুলোতে বিএনপির শোচনীয় পরাজয়ে হতাশাগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন তারেক রহমান।

অর্থ খরচ করে, লবিং করে এমনকি বিদেশি দূতাবাসগুলোর কাছে ধর্না দিয়েও বিএনপিকে রাজপথে ফিরিয়ে আনতে ব্যর্থ হয়ে মনঃকষ্টে ভুগছেন তিনি। বিএনপির এমন দুর্দশায় মনের দুঃখ দূর করতে আগামী ১ মাস রাজনীতি থেকে বিশ্রাম নেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তারেক রহমান।

যুক্তরাজ্য বিএনপির একাধিক দায়িত্বশীল নেতাদের সঙ্গে কথা বলে তথ্যের সত্যতা সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া গেছে। এই বিষয়ে যুক্তরাজ্য স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি নাসির আহমেদ শাহিন বলেন, জাতীয় নির্বাচনে পর থেকেই বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে চাপের মধ্যে ছিলেন তারেক রহমান। নির্বাচন বর্জন করে সরকারবিরোধী কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলতে এবং আন্তর্জাতিক চাপ সৃষ্টি করতে কোটি কোটি টাকা খরচ করেও সুফল না পাওয়ায় চরমভাবে হতাশ হয়েছেন তিনি।

এর মধ্যে আবার সিনিয়র নেতাদের দ্বন্দ্ব, দলীয় কার্যক্রম বাদ দিয়ে নেতাদের আগামী কাউন্সিলে পদ পাওয়ার লবিং নিয়ে চরমভাবে ক্ষুব্ধ হয়েছেন তিনি। বিশেষ করে বেগম জিয়ার মুক্তি নিয়ে আইনজীবী ও সিনিয়র নেতৃবৃন্দের লুকোচুরি খেলায় বিএনপির ভবিষ্যৎ নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন তারেক। কারণ বিএনপির রাজনীতি জিয়া পরিবারকেন্দ্রীক। বেগম জিয়াহীন বিএনপি যেন দাঁড় বিহীন নৌকার মতো। তাই নতুন পরিকল্পনা করে এগিয়ে যাওয়ার জন্য একান্তে গবেষণা করতে তিনি আপাতত রাজনীতি থেকে কিছুটা আড়ালে থাকতে চাইছেন।

এই বিষয়ে লন্ডন বিএনপি নেতা আবদুল মালেক বলেন, তারেক রহমানের হতাশ হওয়াটা যৌক্তিক। কারণ দল গুছিয়ে তুলতে যা করার দরকার, তার সবই করেছেন তিনি। অথচ দলটির সিনিয়র নেতৃবৃন্দ রাজপথে না নেমে প্রেস ব্রিফিং কিংবা ফেসবুকে জুম মিটিং করেন দৈনিক। বিএনপি তো আন্ডারগ্রাউন্ড কোন পার্টি নয়! টিকে থাকতে হলে রাজপথে লড়াই করতে হবে। তাই নতুন করে চিন্তা-ভাবনা করে দলকে শক্তিশালী করতে এবং সরকারবিরোধী আন্দোলন কঠোর করতে ১ মাসের জন্য একান্ত জীবন যাপনের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

  যশোরের আলো
  যশোরের আলো
এই বিভাগের আরো খবর