বৃহস্পতিবার   ০১ ডিসেম্বর ২০২২   অগ্রাহায়ণ ১৬ ১৪২৯   ০৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

  যশোরের আলো
সর্বশেষ:
আওয়ামী লীগ কখনো সন্ত্রাস প্রশ্রয় দেয় না এইডস রোগীদের জন্য যশোরে হচ্ছে এআরটি সেন্টার যশোরে খেজুরের রস আহরণে ব্যস্ত সময় পার করছেন গাছিরা লিসবন বিশ্ববিদ্যালয়ে সম্মাননা পেলেন বাংলাদেশি বিজ্ঞানী সোহেল মুক্তিযুদ্ধের নয় মাস অক্ষত ছিল যে পতাকা খালেদা জিয়া সমাবেশে যোগ দিলে আদালত ব্যবস্থা নেবেন
২২

হাত তুলে ওয়াদা করেন নৌকায় মার্কায় ভোট দিবেন কিনা: প্রধানমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৪ নভেম্বর ২০২২  

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, হাত তুলে ওয়াদা করেন নৌকা মার্কায় ভোট দিবেন কিনা, এসময় জনসভায় আগত সাবই তুলে সায় দেন। সবশেষে তিনি বলেন, 'রিক্ত আমি, নিঃস্ব আমি দেবার কিছু নাই আছে শুধু ভালোবাসা দিয়ে গেলাম তাই। 

তিনি বলেন, রক্ত, হত্যা ছাড়া বিএনপি আর কিছুই দিতে পারেনি। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে ডিজিটাল বাংলাদেশ দিয়েছে। বৃহস্পতিবার যশোরের জনসভায় তিনি এসব কথা বলেন। 

তিনি বলেন, আমরা ক্ষমতায় এসে মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠা করেছি। সারাবিশ্বে মন্দা হলে বাংলাদেশের অর্থনীতি এখনও মজবুত। ব্যাংকে টাকা নাই,  টাকা নাই এটা গুজব, এতে আপনারা কান দিবেন না। ঘরে টাকা রাইখেন না চুরি হয়ে যাবে। 

তিনি বলেন, আমরা যুব সমাজের জন্য সকল সুযোগ-সুবিধা করে দিয়েছি। আন্তঃনগর ইপিজেড নির্মাণের কাজ এগিয়ে চলছে। 

তিনি বলেন, ৭৫’র পর দেশের কোন সরকার এতো উন্নয়ন করেনি। বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় থেকে মানুষের সঙ্গে ছিনিমিনি খেলছে।

তিনি বলেন, দেশে রিজার্ভ নিয়ে কোন ঘাটতি নেই। ব্যাংকেও টাকা নিয়ে কোনো সমস্যা নেই। আমাদের সব ব্যাংকে পর্যাপ্ত টাকা রয়েছে। সামনের দিনে কোনও সমস্যা হবে না। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন, রিজার্ভ নিয়ে নানা ধরনের সমালোচনা শুনছি। অনেকে প্রশ্ন করেন রিজার্ভ গেলো কোথায়? আমরা তো রিজার্ভ অপচয় করিনি। মানুষের কল্যাণে কাজে লাগিয়েছি। জ্বালানি তেল কিনতে হয়েছে, খাদ্যশস্য কিনেছি। বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছি। করোনার টিকা ও চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করেছি। এসব কাজে রিজার্ভ থেকে খরচ করতে হয়েছে আমাদের। কারণ আমরা সবসময় মানুষের কথা চিন্তা করে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড চালাচ্ছি। 

তিনি বলেন, যারা জানতে চান রিজার্ভ কোথায় গেলো, তাদের বলছি, রিজার্ভ কোথাও যায়নি। মানুষের কাজে লেগেছে। যেহেতু যুদ্ধ লেগেছে, দাম বেড়েছে সবকিছুর। তারপরও আমরা খরচ করছি, আমদানি করছি; যাতে দেশের মানুষের খাদ্যের যেন ঘাটতি না হয়। কারও কোনও ধরনের সমস্যায় পড়তে না হয়।

তিনি আরও বলেন, দেশের সব মানুষকে বলছি, কোনও জমি যাতে খালি রাখা না হয়। পারলে একটা মরিচ গাছ লাগান, একটি টমেটো গাছ লাগান। এটি আমাদের সবার উপকারে আসবে।

  যশোরের আলো
  যশোরের আলো
এই বিভাগের আরো খবর