বৃহস্পতিবার   ০৩ ডিসেম্বর ২০২০   অগ্রাহায়ণ ১৮ ১৪২৭   ১৭ রবিউস সানি ১৪৪২

  যশোরের আলো
সর্বশেষ:
রাজবাড়ীতে নতুন করে ৭ জনের করোনা শনাক্ত ‘পার্বত্য চট্টগ্রামসহ দেশে শান্তি বজায় রাখতে সরকার বদ্ধপরিকর’ বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে শৈলকুপায় প্রীতি ফুটবল ম্যাচ হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত, ১০ ডিসেম্বর ফরিদপুর পৌরসভা নির্বাচন খোকসা পৌরসভা নির্বাচন: মেয়র পদে দুই জনসহ ৪৬ জনের মনোনয়নপত্র জমা করোনা পরিস্থিতিতে যশোরের বিজয় দিবস হবে সংক্ষিপ্ত পরিসরে পাঁচ মাসে ১১ বিলিয়ন ডলার ছাড়ালো রেমিট্যান্স ফেসবুকের কল্যাণে বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী হানিফকে খুঁজে পেল তার পরিবার ‘তরুণ প্রজন্মকে বিজ্ঞান চর্চায় আগ্রহী করে তুলতে হবে’
৭৮

২০২২ সাল থেকে মাধ্যমিকের সব শ্রেণিতে কারিগরি শিক্ষা বাধ্যতামূলক

প্রকাশিত: ২০ নভেম্বর ২০২০  

নতুন কারিকুলামে ২০২২ সাল থেকে মাধ্যমিকের সব শ্রেণিতে (ষষ্ঠ-দশম) জীবন ও কর্মমুখী কারিগরি শিক্ষা বাধ্যতামূলক করা হবে। 

এ বিষয়ে এনসিটিবির সদস্য (শিক্ষাক্রম) অধ্যাপক ড. মশিউজ্জামান বলেন, ২০২২ সালে আসন্ন নতুন কারিকুলামের সঙ্গে মাধ্যমিকের সব শ্রেণিতে কারিগরি শিক্ষা বাধ্যতামূলক চালু করা হবে।

মুলত কর্মমুখী শিক্ষা ব্যবস্থা গড়ে তোলার লক্ষ্যে সরকার মাধ্যমিকে কারিগরি ট্রেড চালুর উদ্যোগ নেয়। চলতি ২০২০ শিক্ষাবর্ষ থেকে ‘সেকেন্ডারি এডুকেশন সেক্টর ইনভেস্টমেন্ট প্রোগ্রামের (সেসিপ)’ আওতায় দেশের ৬৪০টি নির্বাচিত সাধারণ শিক্ষা ও মাদরাসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভোকেশনাল কোর্স চালু করা হয়। এর মধ্যে ৫৯৮টি সাধারণ শিক্ষা ধারার বিদ্যালয় এবং ৯২টি মাদরাসার নবম শ্রেণিতে নির্ধারিত দুটি ট্রেড পড়ানো শুরু হয়েছে।

এর আগে, শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি জানিয়েছিলেন, ২০২১ সাল থেকে মাধ্যমিকের সব শ্রেণিকে কারিগরি বাধ্যতামূলক করা হবে। কারিগরির তিনটি ট্রেড পড়াতে হবে মাধ্যমিকের সাধারণ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও মাদরাসা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে। কিন্তু কারিকুলাম পরিমার্জনের কাজ পিছিয়ে যাওয়ায় ২০২২ সাল থেকে এই কার্যক্রম শুরু করা হবে।

কারিগরি শিক্ষা অধিদফতর সূত্রে জানা যায়, এরই মধ্যে নতুন অনেক ট্রেড চালু করা হয়েছে। নতুন কারিকুলাম অনুযায়ী কারিগরি আরো যুগোপযোগী হবে।

এনসিটিবি সূত্র আরো জানায়, ২০২১ সালে প্রথম, দ্বিতীয় ও ষষ্ঠ শ্রেণি, ২০২২ সালে তৃতীয়, চতুর্থ, সপ্তম ও নবম, ২০২৩ সালে পঞ্চম ও অষ্টম, ২০২৪ সালে একাদশ এবং ২০২৫ সালে দ্বাদশ শ্রেণির পরিমার্জিত বই শিক্ষার্থীদের হাতে পৌঁছানোর কথা ছিল। কিন্তু কারিকুলাম পিছিয়ে যাওয়ায় সব এক বছর করে পিছিয়ে দেয়া হয়েছে। নতুন পাঠ্যক্রমে পড়ার চাপ কমিয়ে ধারাবাহিক মূল্যায়নে গুরুত্ব দেয়া হবে। পরীক্ষায় নম্বর ও সময় কমিয়ে আনা হবে। কারিগরি শিক্ষাকে করা হবে জীবনমুখী।

  যশোরের আলো
  যশোরের আলো
এই বিভাগের আরো খবর