মঙ্গলবার   ০৫ জুলাই ২০২২   আষাঢ় ২০ ১৪২৯   ০৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

  যশোরের আলো
সর্বশেষ:
নড়াইলে কৃষকের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ বেনাপোল কাস্টমসের সাড়ে ৪ হাজার কোটি টাকা রাজস্ব আদায় যশোর রোডে শতবর্ষী ঝুঁকিপূর্ণ গাছ অপসারণের দাবি মাল্টিপল ভিসায় আগের নিয়মেই যাওয়া-আসা করা যাবে ভারতে শিক্ষক লাঞ্ছিত: আটক ৪ জনের ৩ দিনের রিমান্ড যশোর কেন্দ্রীয় ঈদগাহে ২২ লাখ টাকার কর্মযজ্ঞ
৮৬০১

বাঘারপাড়ায় অবৈধ প্রণয়ে জন্মনেয়া শিশু উদ্ধার, মূল অভিযুক্ত আটক

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২৮ জুলাই ২০২১  

যশোর সদর উপজেলায় অবৈধ প্রণয়ে জন্মনেয়া শিশুকে বাড়ির পেছনে ফেলে দিয়েছিল কিশোরী মা। খবর পেয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করে মূল অভিযুক্ত আকরাম হোসেনকে আটক করে পুলিশ।

গত সোমবার (২৬ জুলাই) দিবাগত রাত ১০টার দিকে সদর উপজেলার উপশহর ৮ নং সেক্টরে এ ঘটনাটি ঘটে। মঙ্গলবার সকালে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তাদের ডিএনএ পরীক্ষা শেষে দুপুরে নবজাতক ওই শিশু ও তার মাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়।

আটক আকরাম হোসেন বাঘারপাড়া উপজেলার ছোট খুদড়া গ্রামের নুর ইসলামের ছেলে। সে যশোরের একটি কসমেটিক্সের দোকানে চাকরি করে।

পুলিশ জানায়, অভিযুক্ত আকরাম হোসেন ওই কিশোরীর দুঃসম্পর্কের ভাই। সেই সুবাদে তাদের বাড়িতে যাতায়াত ছিলো আকরামের। এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। দুই বছরের বেশি সময় ধরে সম্পর্ক চলাকালে তারা একাধিকবার দৈহিক মেলামেশায় লিপ্ত হয়। এরই মাঝে কিশোরীর গর্ভে চলে আসে সন্তান। এ সময় বিয়ে করতে অপারগতা প্রকাশ করে অভিযুক্ত আকরাম। পরে সোমবার রাতে নবজাতক ভূমিষ্ঠের পর তাকে বাড়ির পেছনের বাগানে ফেলে আসে মা। স্থানীয়রা শিশুর কান্নার আওয়াজ পেয়ে তাকে উদ্ধার করে পুলিশে খবর দিলে তারা এসে নবজাতকের মাকে শনাক্ত করে। পরে তার অভিযোগের ভিত্তিতে বাঘারপাড়া উপজেলার ছোট খুদড়া গ্রামে অভিযান চালিয়ে ঘটনার মূল অভিযুক্ত আকরামকে আটক করা হয়।

এ সময় মা ও অভিযুক্তকে আদালতে হাজির করলে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাহাদী হাসান আসামি ও ভিকটিমের জবানবন্দি গ্রহণ করেন। জবানবন্দি শেষে নবজাতক শিশুটিকে মেয়ের বাবার জিম্মায় দিয়ে মা ও আসামিকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেয় আদালত।

এদিকে কিশোরীর বাবা জানান, আকরাম একটি কসমেটিক্সের দোকানে চাকরি করেন। সে তার দুঃসম্পর্কের ভাই। সেই সুবাদে তাদের বাড়িতে যাতায়াত ছিলো আকরামের। কিন্তু এসব বিষয় তাদের জানা ছিলো না। তিনি আরও জানান,
তার মেয়েকে বিয়ে করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে আকরাম। খুব শীঘ্রই আদালতের মাধ্যমে মেয়ে ও নাতনীকে জামায়ের হাতে তুলে দেবেন তিনি।
 

  যশোরের আলো
  যশোরের আলো
এই বিভাগের আরো খবর