মঙ্গলবার   ০৯ আগস্ট ২০২২   শ্রাবণ ২৪ ১৪২৯   ১০ মুহররম ১৪৪৪

  যশোরের আলো
সর্বশেষ:
যশোরের পুলিশ সুপারসহ ৪ পুলিশ কর্মকর্তাকে পুরস্কৃত বাংলাদেশকে ৩০ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে বিশ্বব্যাংক বিভিন্ন রুটে ভাড়ার নতুন তালিকা প্রকাশ করলো বিআরটিএ ঝিনাইদহে কৃষকের মাঝে কৃষি-পল্লী ঋণ বিতরণ দেশীয় কিটে ২৫০ টাকায় করা যাবে করোনা পরীক্ষা গম-ভুট্টা চাষিরা কম সুদে পাবেন ১ হাজার কোটি টাকার ঋণ
৯০

মহাকবি মধুসূদন দত্তের ১৪৯তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

প্রকাশিত: ২৯ জুন ২০২২  

অমিত্রাক্ষর ছন্দের জনক মহাকবি মাইকেল মধুসূদন দত্তের মৃত্যুবার্ষিকী আজ। তিনি ১৮৭৩ সালের ২৯ জুন কলকাতার আলীপুর হাসপাতালে মারা যান। কপোতাক্ষ নদের পাড়ে জন্ম নেয়া এই মহাকবির ১৪৯তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ।

১৮২৪ সালের ২৫ জানুয়ারি যশোরের সাগরদাঁড়ি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন মধূ। তাঁর বাবা রাজনারায়ণ দত্ত ছিলেন কলকাতার দেওয়ানি আদালতের আইনজীবী। মা জাহ্নবী দেবী। মায়ের কাছেই মধুসূদনের প্রাথমিক শিক্ষার হাতেখড়ি। 

১৮৪৩ সালে তিনি খ্রিস্টধর্ম গ্রহণ করেন এবং নিজের নামের সঙ্গে মাইকেল যুক্ত করেন। ধর্মান্তরিত হওয়ায় হিন্দু কলেজ থেকে বিতাড়িত হন, বাবাও ত্যাজ্যপুত্র করেন। ১৯৪৮ সালে তিনি কলকাতা ত্যাগ করে মাদ্রাজ চলে যান। 

পাশ্চাত্য নাট্যরীতিতে রচনা করেন ‘শর্মিষ্ঠা’, ‘একেই কি বলে সভ্যতা’, ‘বুড়ো শালিকের ঘাড়ে রোঁ’, ‘পদ্মাবতী’, ‘কৃষ্ণকুমারী’ ইত্যাদি। এ ছাড়া ‘তিলোত্তমাসম্ভব’, ‘মেঘনাদবধ’, ‘ব্রজাঙ্গনা’, ‘বীরাঙ্গনা’ ইত্যাদি কাব্য রচনা করেন। 

১৮৬২ সালে ব্যারিস্টারি পড়তে ইংল্যান্ড যান। সেখান থেকে ১৮৬৩ সালে ফ্রান্সে যান। ফ্রান্সের ভার্সাই নগরে ইতালীয় কবি পেত্রাকের অনুকরণে ‘চতুর্দশপদী’ কবিতা (সনেট) লিখতে শুরু করেন। পরে ‘চতুর্দশপদী কবিতাবলী’ (১৮৬৬) নামে এটি গ্রন্থাকারে প্রকাশিত হয়। 

১৮৬৬ সালে লন্ডনের গ্রেজ উন থেকে ব্যারিস্টারি ডিগ্রি লাভ করেন। পরের বছর দেশে ফিরে এসে হাইকোর্টে আইন ব্যবসায় যোগ দেন। 

  যশোরের আলো
  যশোরের আলো
এই বিভাগের আরো খবর