মঙ্গলবার   ০৯ আগস্ট ২০২২   শ্রাবণ ২৪ ১৪২৯   ১০ মুহররম ১৪৪৪

  যশোরের আলো
সর্বশেষ:
যশোরের পুলিশ সুপারসহ ৪ পুলিশ কর্মকর্তাকে পুরস্কৃত বাংলাদেশকে ৩০ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে বিশ্বব্যাংক বিভিন্ন রুটে ভাড়ার নতুন তালিকা প্রকাশ করলো বিআরটিএ ঝিনাইদহে কৃষকের মাঝে কৃষি-পল্লী ঋণ বিতরণ দেশীয় কিটে ২৫০ টাকায় করা যাবে করোনা পরীক্ষা গম-ভুট্টা চাষিরা কম সুদে পাবেন ১ হাজার কোটি টাকার ঋণ
১৮৪

বাসের টিকিট প্রায় শেষ, রেলে দীর্ঘ সারি

প্রকাশিত: ৪ জুলাই ২০২২  

এবারের ঈদ যাত্রায় বাসের অগ্রিম টিকিট বিক্রি গত ২৪ জুন থেকে শুরু হয়েছে। আর রেলের টিকিট বিক্রি শুরু হয় ১ জুলাই থেকে। এরই মধ্যে সব বড় রুটে বাসের অগ্রিম টিকিট শেষ হয়ে গেছে। আর রেলের টিকিট এখনও পাওয়া যাচ্ছে।

সোমবার সকাল ৮টা থেকে কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু হয়েছে। আজ ৪ জুলাই দেওয়া হচ্ছে ৮ জুলাইয়ের টিকিট এবং ৫ জুলাই ৯ জুলাইয়ের টিকিট বিক্রি হবে।

ঢাকার কমলাপুর রেলস্টেশনে গিয়ে দেখা যায়, সকাল ৮টায় টিকিট বিক্রির জন্য কাউন্টার খোলা হলেও মধ্যরাত ও ভোর থেকেই শত শত মানুষ টিকিটের জন্য লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন। দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর অনেকেই পাচ্ছেন কাঙ্খিত সেই টিকিট। চাহিদার তুলনায় টিকিট কম হওয়ায় আবার সারারাত অপেক্ষা করেও অনেকে পাননি টিকিট। 

এদিকে গতকালও রাজধানীর কমলাপুর রেলওয়ে স্টেশনে ছিল টিকিট প্রত্যাশীদের উপচেপড়া ভিড়। তারা বলছেন, সারারাত স্টেশনে অপেক্ষা করেও অনেকে টিকিট পাননি। আর যারা পেয়েছেন তারা খুবই খুশি।

গতকাল টিকিট বিক্রি শুরু হওয়ার প্রথম ঘণ্টায় ঢাকা থেকে অনলাইনে বিক্রি হয়েছে প্রায় ১০ হাজার ৬০০টি টিকিট। আর কাউন্টারে বিক্রি করা হয়েছে চার হাজার ৭১১টি টিকিট।   

রেলের টিকিটের এমন চাপকে স্বাভাবিক বলে মনে করছেন কমলাপুর রেলস্টেশনের ব্যবস্থাপক মোহাম্মদ মাসুদ সারওয়ার। তিনি বলেন, বৃহস্পতিবার শেষ অফিস হওয়ায় সব মানুষই এই দিনে বাড়ি যেতে চায়। তাই সবাই টিকিট পাবে না, এটাই স্বাভাবিক। 

গতকাল যারা টিকিট পায়নি তাদের অনেককেই আজ সোমবারের জন্য লাইনে দাঁড়াতে দেখা গেছে। আজ বিক্রি করা হবে আগামী শুক্রবারের টিকিট। আর আগামীকাল মঙ্গলবার ঈদযাত্রায় রেলের অগ্রিম টিকিট বিক্রির শেষ দিন।

এরই মধ্যে বাসের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শেষ হয়ে গেছে। এ ব্যাপারে হানিফ পরিবহনের মহাব্যবস্থাপক মোশারফ হোসেন বলেন, বেশিরভাগ বড় রুটের বাসের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শেষ হয়ে গেছে। কম দূরত্বের রুটে যেসব বাস চলে সেগুলোর ক্ষেত্রে অগ্রিম টিকিটের চাহিদা তেমন থাকে না।

  যশোরের আলো
  যশোরের আলো
এই বিভাগের আরো খবর