মঙ্গলবার   ০৫ ডিসেম্বর ২০২৩   অগ্রাহায়ণ ২০ ১৪৩০   ২২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৫

  যশোরের আলো
সর্বশেষ:
জিডিপিতে বস্ত্র খাতের অবদান ১৩ শতাংশ : প্রধানমন্ত্রী সারা দেশে ১৫৪ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন নড়াইলের চারণকবি বিজয় সরকারের ৩৮তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ নভেম্বরে দেশে রেমিট্যান্স এসেছে ২১ হাজার ১৮১ কোটি টাকা দেশের নির্বাচনি পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করবে ইইউ তারেক জিয়ার নেতৃত্বে এখন আগুন সন্ত্রাস চলছে : তথ্যমন্ত্রী মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই: বাতিল ২৭৫, স্থগিত ২৩ বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমিতে রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত
২৩৯২

ঘুমের ভেতর পায়ে টান পড়ে কেন?

প্রকাশিত: ২৪ জানুয়ারি ২০১৯  

অনেক সময় ঘুমের মধ্যে আমাদের পায়ে টান পড়ে। কিন্তু কেন? কখনও কি এর কারণ খুঁজেছি? বিশেষ করে ভোর রাতে অনেকের পায়ের পেশিতে টান লাগে। যার ফলে পরদিন দেখা যায়, সারাদিন ধরে পায়ের পেশিতে ব্যথা অনুভব হয়।

শুধু যে ঘুমের মধ্যেই মাসল ক্র্যাম্প হয়, তা নয়। কখনও কখনও হাত-পা ছড়িয়ে বিশ্রাম নেয়ার সময়ও পেশিতে প্রবল টান পড়তে পারে।

অনেক সময় আমাদের অনিয়মিত ও অস্বাস্থ্যকর খাওয়া-দাওয়া এই ধরণের সমস্যার জন্য দায়ি হয়। এছাড়াও একাধিক কারণ রয়েছে। আসুন জেনে নেওয়া যাক পায়ের পেশিতে কেন টান লাগে? এর থেকে রক্ষার উপায়-

গবেষকদের মতে পটাশিয়ামযুক্ত খাবার পেশিতে টান কমাতে সাহায্য করে। পটাশিয়াম পেশি ও স্নায়ুর মধ্যে সংযোগ রক্ষা করতে সাহায্য করে। এছাড়া কখনও কখনও প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবারও সুফল দেয়। আসলে প্রোটিন পেশি ও টিস্যুর সমস্যা সমাধানে সাহায্য করে থাকে।

সারাদিনে পর্যাপ্ত পরিমানে পানি খাবেন। শরীরে পানির ভারসাম্য রক্ষা করতে ডাবের পানি অথবা লেবু-পানিও খেতে পারেন। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে শরীরে পানির ঘাটতির জন্যই মেস ক্র্যাম্প হয়।

পটাশিয়ামের সেরা উৎস হল কলা। পটাশিয়াম কার্বন ভাঙতে ও পেশির গঠনে সাহায্য করে। তাই কলা এক্ষেত্রে উপকারী খাবার হতে পারে। পটাশিয়াম কিন্তু স্নায়ুতন্ত্রের কার্যকারিতা বজায় রাখতেও সাহায্য করে।

কলার পাশাপাশি মিষ্টি আলু খেতে পারেন। লাল আলু পটাশিয়ামের ভাল উৎস। এছাড়াও এতে ম্যাগনেসিয়াম ও ক্যালসিয়াম রয়েছে। সাধারণ আলু ও কুমড়া আপনার শরীরে ম্যাগনেসিয়াম, পটাশিয়ামের জোগান দেবে।

শীতকালে শিম ও মটরশুঁটি আপনার শরীরে প্রোটিন ও ম্যাগনেশিয়ামের জোগান বাড়াবে। অনেক সময় মেয়েদের মাসিকের সময় মাসল ক্র্যাম্পের হাত থেকে বাঁচায় উচ্চ ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার।

  যশোরের আলো
  যশোরের আলো