সোমবার   ০৩ অক্টোবর ২০২২   আশ্বিন ১৭ ১৪২৯   ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

  যশোরের আলো
সর্বশেষ:
যশোরে আগাম শীতকালীন সব‌জি চাষ, ভালো দামে খু‌শি কৃষক দুর্গাপূজা উপলক্ষে বেনাপোলে ৪ দিন বন্ধ আমদানি-রফতানি ঝিনাইদহে ছড়িয়ে পড়ছে লাম্পি স্কিন ডিজিজ, দিশেহারা খামারিরা ঝিনাইদহ পৌরসভার মেয়র ও কাউন্সিলরদের শপথ গ্রহণ জিনপিংকে শুভেচ্ছা জানিয়ে হামিদ-হাসিনার চিঠি যশোর ভবদহের ধলিয়ার বিলে নির্মিত হবে ইপিজেড
৪৮

বন্ধু তো বন্ধুই, তার ছয়টি বিষয়ে খেয়াল রাখুন

প্রকাশিত: ৩০ জুলাই ২০২২  

বন্ধুত্ব বাঁচে ভালোবাসায়। বন্ধু হয়ে বন্ধুকে কখনো লজ্জায় ফেলা কাজের কথা না। যাতে বন্ধুর অসম্মান হয় কথা বলা ঠিক নয়। ছয়টি বিষয়ে খেয়াল রেখে বন্ধুত্বকে সুন্দর করে তুলুন।

বন্ধুর আত্মবিশ্বাস জাগিয়ে তুলুন
আপনি জানেন, আপনার বন্ধুর সামর্থ্য, জ্ঞান, বুদ্ধির অবস্থা। বন্ধুকে ভালো কাজে যত পারেন উৎসাহ দিন। তার অনেক সময় সমর্থন, সাহায্য আর নির্দেশনার প্রয়োজন হতে পারে। সঠিক নির্দেশনা দিয়ে বন্ধুর পাশে থাকুন। যদি বন্ধু অনৈতিক বা খারাপ দিকে যেতে থাকে, তবে তাকে বুঝিয়ে বলুন। বন্ধুর আত্মশক্তি আবিষ্কার করতে সাহায্য করুন। 

লজ্জায় ফেলবেন না
বন্ধুত্বের সম্পর্ক ভালো হলেও বন্ধুর গায়ের রং বা বর্ণ নিয়ে কখনো খোঁচা দিতে যাবেন না। বন্ধুকে খোঁচা দিয়ে কথা বলার চেয়ে প্রশংসা করলে সম্পর্ক আরো গাঢ় হয়। খোঁচা দিয়ে কথা বলার অভ্যাস যাদের আছে তারা সম্পর্কে ভালো ভীত তৈরি করতে পারে না।

বুঝিয়ে বলুন
বন্ধুকে ভালো কাজে যত পারেন উৎসাহ দিন। মন্দ কাজে নিরুৎসাহিত করুন। বন্ধুর আত্মবিশ্বাস জাগিয়ে তুলুন। তবে যাই বলুন বুঝিয়ে বলুন। পরামর্শের সুরে কথা বলুন, নির্দেশের সুরে কথা বলে নেতা হতে যাবেন না।

বন্ধুর গোপন কথা ফাঁস করবেন না
বন্ধুর গোপন কথা অন্য কারও কাছে বলতে যাবেন না। এতে আপনি কেবল বন্ধুর কাছেই বিশ্বাসযোগ্যতা হারাবেন না, যার কাছে বলবেন সেও আপনার ব্যক্তিত্ব সম্পর্কে সন্দেহ পোষণ করবে।

সব সময়ের বন্ধু হোন
সুসময়ে বন্ধু বটে- এই কথা যেন আপনার ক্ষেত্রে সত্য না হয়, সুসময় এবং বিপদে বন্ধুর পাশে থাকুন। একসঙ্গে হাসুন, একসঙ্গে বেদনা ভাগাভাগি করুন। সুসময়ে বন্ধুর প্রতি অবহেলা করলে মনে হতে পারে আপনি তার উন্নতি মানতে পারছেন না। সুতরাং সব সময়ের বন্ধু হোন।

বিব্রত ও অস্বস্তিকর অবস্থা এড়িয়ে চলুন
বন্ধুর যদি আর্থিক অবস্থা খারাপ থাকে, তবে তাকে স্বনির্ভর হতে বা ঘুরে দাঁড়াতে সার্বিকভাবে সহযোগিতা করতে পারেন। দিনের পর দিন টাকা ধার দিয়ে সম্পর্কটা বিব্রতকর অবস্থায় নিয়ে যাবেন না, একইভাবে আপনিও বনধুর কাছে কারণে অকারণে ধার নেবেন না।

তথ্যসূত্র: জিনিউজ

  যশোরের আলো
  যশোরের আলো