সোমবার   ২৫ অক্টোবর ২০২১   কার্তিক ১০ ১৪২৮   ১৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

  যশোরের আলো
সর্বশেষ:
উদ্বোধন হলো স্বপ্নের পায়রা সেতু কৃষি উদ্যোক্তাদের সহযোগিতায় হবে বিশেষ সেল অবশেষে দেশে চালু হচ্ছে পেপ্যাল নবায়নযোগ্য জ্বালানি থেকে ৪০ ভাগ বিদ্যুত নেয়ার পরিকল্পনা স্বল্পোন্নত দেশের মধ্যে তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহারে এগিয়ে বাংলাদেশ
১৩৯

যশোরে ৪শ’ একর জমিতে ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক নির্মাণ করবে বিসিক

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ২৭ আগস্ট ২০২১  

উন্নয়নের পথে আরও এক ধাপ এগিয়ে যাচ্ছে যশোর। জেলায় ৪০০ একর জমিতে অটো মোবাইল এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক নির্মাণ করবে বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প কর্পোরেশন বিসিক। 

উদ্যোগটি হাতে নিতে ইতোমধ্যে যশোরের দুটি এলাকা পরিদর্শন করেছেন বিসিক বাংলাদেশের চেয়ারম্যান মো. মোশতাক হাসান।

এরকম প্রকল্প এর আগেও হাতে নেয়া হয়েছিল। তবে ফসলি জমিতে কোনো শিল্প-প্রতিষ্ঠানে অনুমতি দেয়নি ভূমি মন্ত্রণালয়। তবে চেয়ারম্যান নতুন করে দুটি স্পট পরিদর্শন করে যাওয়ার পর নয়া উদ্যোগ গতিশীল হচ্ছে। 

বিসিকের এ লক্ষ্য বাস্তবায়িত হলে যশোর অঞ্চলের বিপুল সংখ্যক মানুষের কর্মসংস্থান হবে। গড়ে উঠবে অত্যাধুনিক কলকারখানা, যা দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে।

যশোরাঞ্চলের উদ্যোক্তা মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তি, দেশীয় মানসম্মত পন্য উৎপাদন ও বেশি বেশি মানুষের কর্মসংস্থানসহ আরো কয়েকটি  লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের জন্য যশোরে বিসিক প্রতিষ্ঠা করা হয়। বর্তমানে ৫০ একর জমির উপর যশোর বিসিক শিল্পনগরী চলমান। 

আধুনিক ও সময়োপযোগী এবং বৃহৎ উন্নয়নের উদ্দেশ্যে বর্তমান বিসিক বাংলাদেশের চেয়ারম্যান যশোরে অটো মোবাইল এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক নির্মাণের টার্গেট হাতে নেন। যশোরের ফতেপুর চানপাড়া মৌজায় ১শ’ একর জমিতে প্রথমে ওই পার্ক তৈরির টার্গেট হাতে নেয়া হয়। 

অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া, জমি দেখাশুনা মাপজোক সম্পন্ন করা হয়। কিন্তু ভূমি মন্ত্রণালয় ওই জমিতে অটো মোবাইল পার্ক করার ব্যাপারে আপত্তি তোলে। মন্ত্রণালয় প্রতিবেদন দেয়, ওটি তিন ফসলি জমি। কৃষক ও কৃষি ক্ষতিগ্রস্ত হবে। ওই সব বিবেচনায় ওই মৌজা থেকে সরে এসেছে বিসিক।  

নতুন করে যশোরে ২শ’ থেকে ৪শ’ একর জমিতে ওই পার্ক তৈরির নতুন উদ্যোগ নিয়েছে। 

বিসিক বাংলাদেশের চেয়ারম্যান মোশতাক হোসেন যশোরের সুতীঘাটা এলাকা ও মালঞ্চি এলাকা পরিদর্শন করে গেছেন। ওই দুটি স্পটের জমির সম্ভাব্যতা যাচাই করা হচ্ছে। সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলোর সাথে সমন্বয় করে দ্রুতই কর্মযজ্ঞ শুরু করার টার্গেট রয়েছে বিসিকের।  

এ ব্যাপারে বিসিক বাংলাদেশের চেয়ারম্যান মোশতাক হাসান জানিয়েছেন, দুটি এলাকা পরিদর্শন করেছেন। যশোর অঞ্চলের শিল্পকে বিশ্বমানের করার টার্গেট রয়েছে। সে লক্ষেই অটো মোবাইল এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্ক নির্মাণের টার্গেট রয়েছে। এ ব্যাপারে প্রক্রিয়াগুলো একেএকে সম্পন্ন করা হবে। আধুনিক ও উন্নত মানে বিসিককে এগিয়ে নিতে কাজ চলছে।

এ ব্যাপারে বিসিক যশোর জেলা কার্যালয়ের উপ মহাব্যবস্থাপক ফরিদা ইয়াসমিন জানিয়েছেন, চানপাড়া মৌজার জমিতে ওই পার্ক বেশ এগিয়েছিল।  তবে কৃষি জমি বিবেচনায় ভূমি মন্ত্রণালয় আপিত্ত করেছে। নতুন করে যে দুটি স্পট ভাবা হচ্ছে সে ব্যাপারে কাজ চলছে। 

  যশোরের আলো
  যশোরের আলো
এই বিভাগের আরো খবর