মঙ্গলবার   ০৯ আগস্ট ২০২২   শ্রাবণ ২৪ ১৪২৯   ১০ মুহররম ১৪৪৪

  যশোরের আলো
সর্বশেষ:
যশোরের পুলিশ সুপারসহ ৪ পুলিশ কর্মকর্তাকে পুরস্কৃত বাংলাদেশকে ৩০ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে বিশ্বব্যাংক বিভিন্ন রুটে ভাড়ার নতুন তালিকা প্রকাশ করলো বিআরটিএ ঝিনাইদহে কৃষকের মাঝে কৃষি-পল্লী ঋণ বিতরণ দেশীয় কিটে ২৫০ টাকায় করা যাবে করোনা পরীক্ষা গম-ভুট্টা চাষিরা কম সুদে পাবেন ১ হাজার কোটি টাকার ঋণ
২০৬

পৌষ সংক্রান্তিতে মণিরামপুরে বাস্তুপূজা উৎসবে

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৬ জানুয়ারি ২০২২  

ইট দিয়ে তৈরি সারি সারি চুলা জ্বলছে। জ্বলন্ত চুলার ওপর হাড়ি-কড়াই বসিয়ে গরম তেলে পাকান, ভাপা-কাচিপূড়া (চিতয় পিঠা), কলাসহ বিচিত্র ধরনের পিঠা বানাতে ব্যস্ত সময় করছেন কয়েকশ’নারী। এসব পিঠা প্রসাদ হিসেবে খেতে দেয়া হয় পূজায় আসা মানুষকে।

শুক্রবার ছিল পৌষ মাসের শেষ দিন। দিনটি সানতন ধর্মাবলম্বীরা পৌষসংক্রান্তি বাস্তুপূজা করে থাকেন। এদিন সন্ধ্যা হতে যশোরের মণিরামপুরের আলীপুর গ্রামের বটতলায় পিঠা তেরি শুরু করেন এলাকার নারীরা। যা রাতভর চলে। উৎসব মুখর পরিবেশের মধ্যে চলে পিঠা-পুলি তৈরি ও খাওয়া। চলে বাস্তুপূজাও।

আয়োজকরা জানিয়েছেন, এলাকার প্রায় দুশ’ নারী পিঠা তৈরিতে অংশ নেন। পিঠা বানাতে বেশ আগে থেকেই প্রয়োজনীয় উপকরণ জোগাড় করেন নারীরা। শুধু এলাকার লোকজনই না, আশেপাশের আত্বীয়-স্বজন এ উৎসবে যোগ দেন। প্রতিটি বাড়িতে চলে এ উৎসব।

পিঠা তেরিতে ব্যস্ত প্রমিলা, সুনিতা, অনিমা, পারুল, ময়নাসহ একাধিক নারী জানান, পৌষ সংক্রান্তিতে বাস্তুপূজা উৎসবের আমেজে আয়োজিত হয়। গ্রামের নারীরা একত্রিত হয়ে চূলা বানিয়ে এক জায়গায় পাশাপাশি বসে বিভিন্ন ধরনের পিঠা তৈরি করা হয়। এ পিঠা প্রসাদ হিসেবে সাইকে বিতরণ করা হয়। এলাকার সকলেই আনন্দ-উৎসবের মধ্যে দিয়ে এ দিনটি উপভোগ করেন।

শিক্ষক উৎপল বিশ্বাস বলেন, এ উৎসবে মশিয়াহাটি এলাকার প্রতিটি সনাতন ধর্মাবলম্বীর বাড়িতে পিঠা তৈরি করা হয়।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শেখর চন্দ্র রায় বলেন, পৌষ সংক্রান্তিতে বাস্তুপূজা ভবদহ বিল পাড়ের দুর্গত মানুষেরা উৎসবের আমেজে করে থাকেন। যা তাদের দুঃখ-দুর্দশা ক্ষণিকের জন্য হলেও ভুলিয়ে দেয়।
 

  যশোরের আলো
  যশোরের আলো
এই বিভাগের আরো খবর